[New Trick 2019] মোবাইল ফোন কেনো গরম হয়? এবং এই সমস্যার সমাধান - ১০০% কাজ করবে

সবকিছুই কিন্তু গরম হয়। যেমন ধরুন আপনি একটা ফ্যান বা টিভি কিছুক্ষণ চালালেন। চালানোর কিছুক্ষণ পর দেখে থাকবেন টিভি বা ফ্যান গরম হয়। আবার দেখুন কেউ যদি আপনাকে গালি দেয় তাইলে দেখবেন আপনার মাথা গরম হয়ে যাবে 😛😛 (Just Fun করলাম Don't Mind) তো আজকের এই পোস্টে আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব মোবাইল ফোন বা স্মার্টফোন কেনো গরম হয়? এর পিছনে কি কি কারণ থাকে এবং এই সমস্যার সমাধান কি সবকিছু আজকের এই পোস্টে আমি আপনাদের মাঝে আলোচনা করব। তো আপনারা যদি পুরো পোস্ট মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে আপনারা কিন্তু অনেক কিছুই জানতে পারবেন। এক্ষেত্রে লাভ ছাড়া লস হবেনা এটা বলতে পারি। তো আর কথা না বলে Main টপিক এ চলে যাওয়া যাক।

why does a smartphone get hot,itexpertbd,why does my phone get hot so fast,phone gets hot and drains battery,why is my phone hot and losing battery,why does my phone get hot while charging,why does my phone get hot when i'm not using it,android phone overheating,how do you cool down your phone,মোবাইল ফোন কেন় গরম হয়, এই সমস্যার সমাধান,মোবাইল ফোন গরম হওয়ার কারণ,মোবাইল ফোন গরম হওয়া থেকে বাঁচান,smartphone,why smartphone heat,why dose your mobile phone get hot,why does your smartphone get hot without reason bangla tutorial,smartphone heating,why smartphone heat up?,why phone get heat,hot smartphone,smartphone overheating,why smartphone heat up and how to fix it?,why snartphones heat,heating issue of a smartphone,why does my phone battery overheat,get paid from your smartphone,in bangla,smartphone,overheating,smartphone overheating,smartphone blast,phone overheating,smartphone heating problem,phone overheating solution,overheating phone,why smartphone heat,android overheating,heating,why snartphones heat,android phone overheating,smartphone heat,phone overheating fix,android heating,phone keeps overheating,prevent your phone from overheating,smartphone overheating while charging,android overheating fix
Smartphone Overheating Problem Solution - ITExpertBD      

মোবাইল ফোন কেনো গরম হয়? এবং এই সমস্যার সমাধান

তো বন্ধুরা স্মার্টফোন গরম হয় এটার অনুভূতি পান আপনারা অনেক সময় দেখবেন মোবাইল ফোন গরম হয় চার্জ দেওয়ার সময়। যখন দেখবেন চার্জ এ বসাবেন তখন কিছুক্ষণ পর গরম অনুভূতি হয়।



আবার অনেক স্মার্টফোন গরম হয় যখন আপনি ভিডিও দেখবেন তখন। আবার অনেক আছে যখন কোনো Application ইউজ করে তখন প্রচুর পরিমাণে ফোন গরম হয়। তো এই গরম গুলো হয়, এই গরম গুলো বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণে হয়ে থাকে। আর এর যে প্রধান কারণ হচ্ছে তা হলো প্রসেসর। ফোনের মধ্যে প্রসেসর থাকে এটা আপনি আমি প্রায়ই সকলে জানি। তো ফোনের যে মাথাটা রয়েছে এটাই মুলত প্রসেসর। ফোনের মাথাতেই প্রসেসর এর অবস্থান। তো এই যে প্রসেসর টা থাকে এটা ফোনের ভিতরে থাকে। আর এই প্রসেসর এর ভিতরে ইলেকট্রন থাকে। আপনি যখন ফোনে কোনো কাজ করেন তখন ফোনের ভিতরে যে প্রসেসর টা থাকে তার ভিতর ইলেকট্রন গুলো এদিক ওদিক ছোটাছুটি করে। তখন কি হয় এক ইলেকট্রন যখন অন্য ইলেকট্রন এর সাথে ধাক্কা লাগে তখন গরম কিছু অনুভূতি তৈরি হয় আর সেই গরম টা প্রসেসর থেকে ফোনে আসে এবং ফোন থেকে আমরা গরম টা হাতে অনুভব করতে পাই। তো এই গরম হওয়ার মেইন কারণ হলো প্রসেসর।

২য় যে কারণ টা হচ্ছে তা হলো ব্যাটারি। ফোনের ব্যাটারির যেরকম ক্যাপাসিটি হবে সেই অনুযায়ী গরম হবে। এখন কার যে ফোন গুলো বের হচ্ছে সেগুলো কিন্তু অনেকটাই পাতলা হয়। যত দিন যাচ্ছে ফোন পাতলা হয়ে যাচ্ছে। তো এবার এই ক্ষেত্রে যখন ফোন টা গরম হয়ে যায় তখন সহজে কিন্তু তা অনুভব হয় কেননা ফোনটা অনেক পাতলা। ফোন পাতলার কারণে প্রসেসর থেকে গরম সরাসরি ফোনের যে বডি টা রয়েছে তাতে লাগছে এবং সরাসরি আপনার হাতে সেই গরম টা অনুভব হচ্ছে। তো এইবার যদি ফোনটা কোনো বাক্সের মত বড় হতো তাহলে ফোনের যে বডি টা গরম হতো সেটা আপনার হাতে পৌঁছাতে পৌঁছাতে ঠান্ডা হয়ে যেতো। তাহলে কিন্তু আপনি আর গরম টা অনুভব করতে পারতেন না। যেহেতু এখন Generation এর সাথে সবকিছু পালাচ্ছে। তারপর আর একটা কারণে ফোন গরম হয় তা হলো ভুল চার্জার এর ব্যবহার করা। আমি যদি ধরুন কোথাও বেড়াতে গেলাম তখন আমার চার্জার নেই। তখন আমার ফোন কে চার্জ করার জন্য অন্যের চার্জার ইউজ করতে হচ্ছে। তো দেখুন একটা ফোনের যে কম্পানি তারা যে ফোনের সাথে চার্জার টা দেয় তারা সেই ফোনের জন্য সেরকম ক্যাপাসিটির কথা খেয়াল করেই চার্জার টা বানায়। ফোনের যে চার্জার টা আছে এটা Ac থেকে Dc তে খুবই সহজে Normal করে নিয়ে আসে। তারপর কিন্তু আমাদের ফোনটা চার্জ হয়। তারা কিন্তু সেইভাবেই চার্জার টা তৈরি করেছে। তো আপনি এখন যদি আপনার Original ফোনের চার্জার টা ইউজ না করে অন্য চার্জার ইউজ করেন সেই ক্ষেত্রে কিন্তু ফোনের উপর একটা চাপ পড়বে। সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনার ফোনটা গরম হয়ে যাবে। তো আপনারা সবসময় চেষ্টা করবেন Other যে চার্জার গুলো আছে। সেগুলো ইউজ না করে ফোনের Original চার্জার টা সবসময় ইউজ করার Try করবেন। আবার অনেকে করে কি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার এর সাথে ফোন চার্জে বসিয়ে দেয়। কিন্তু আপনারা এই ভুলগুলো কিন্তু কখনোই করবেন না।




আমরা অনেক সময় করে থাকি কি Unknown এপ্লিকেশন গুলো ফোনে ইনস্টল করে রাখি৷ সেক্ষেত্রে অনেক সময় দেখা যায় এপ্লিকেশন গুলো আমাদের ফোনের অনেক পারমিশন নিয়ে নেয়। যার ফলে লোকেশন,ব্লুটুথ ইত্যাদি এপ্লিকেশন এর মাধ্যমে অটোমেটিক অন হয়। আবার অনেক এপ Background এ চলতে থাকে যেমন: Messenger,WhatsApp,Telegram. এসব এপগুলো Background সবসময় চলার ফলে র্যাম,ব্যাটারি সবকিছু খেয়ে ফেলে এবং প্রসেসর ও Consume করে ফেলে। ফলে ফোন হিট হতে থাকে। আর সেই হিটটা আপনার হাতে অনুভূত হয়। তো এখন আপনারা এই প্রবলেম থেকে বাঁচতে ফোনের অপ্রয়োজনীয় এপ্লিকেশন গুলো Uninstall করে ফেলুন। আর যে এপ যে সময় ইউজ করার দরকার হয় তখন ইউজ করবেন আর বাকি সময় Force Stop করে রাখুন। তাহলে আপনার ফোনের ব্যাটারি কম Consume হবে এবং ফোন গরম হওয়ার সম্ভবণা কমে যাবে।

আর একটা কারণে গরম হয় তা হলো ফোনের যে Hardware সিস্টেম টা রয়েছে তা গরম হয়ে প্রবলেম টা হয়। Hardware বলতে ফোনের যে Operating সিস্টেম টা Default ভাবে দেওয়া থাকে যেমন ধরুন: Marshmallow তো এখন যদি ফোনে কোনো Naught এর কোনো Launcher ইউজ করা হয় সেক্ষেত্রে কিন্তু ফোনের Hardware এর উপর চাপ পড়বে। ফলে ফোন টা প্রচুর হিট হতে থাকবে। তো আমি সাজেস্ট করব আপনারা সবসময় ফোনের Dafault যে Launcher আছে সেটা সবসময় ইউজ করবেন।

আর একটা কারণে ফোন গরম হয় তা হলো Overload. যেমন ধরুন আপনি একটা বাইক যদি খুব জোরে চালান সেক্ষেত্রে কিন্তু বাইকের ইন্জিন টা গরম হয়ে যায়। মানে আমরা যখন কোনো জিনিস অত্যাধিক করি সেটাই দেখবেন গরম হয়ে যাবে৷ তো এখন আপনার ফোনে ধরুন একটা ভিডিও ডাউনলোড করছেন তো এখন যদি আপনি Pubg গেমটা খেলেন। তাহলে ভাবুন আপনার ফোনের ভিতরে তো কাজ হচ্ছেই এখন যদি একসাথে দুই টা করতে যান তখন আপনার ফোনের প্রসেসর এর উপর বিশাল চাপ পড়বে৷ ফলে ফোন টা অধিক পরিমাণে গরম হতে থাকবে।

আমরা বেশির ভাগ সময় ফোনের নোটিফিকেশন বার এ যত কিছু আছে সবগুলোই অন করে দেই। আবার ফ্লাশ লাইট জ্বালাই। তখন কিন্তু ফোনের ব্যাটারির উপর চাপ পড়ে। আবার দেখা যায় অনেকে ফোনের যে Brightness টা আছে সেটা ফুল করে দেয়। সেই ক্ষেত্রে ফোনের স্কিন এর উপর চাপ পড়ে। আবার অনেক সময় যখন আমরা বাইরে বের হই তখন কিন্তু এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যায়। তখন ফোনের নেটওয়ার্ক পাওয়ার জন্য ফোনের এন্টেনা নিকটবর্তী টাওয়ার খুঁজতে থাকে তখন অতিরিক্ত পাওয়ার Supply হয়। আর সেক্ষেত্রে ও কিন্তু ফোনের প্রসেসর এর উপর ই চাপটা পড়ে ফলে ফোন অনেক পরিমাণে হিট হতে থাকে। তো এই ক্ষেত্রে আপনি যা করতে পারেন তা হলো বাইরে বের হওয়ার আগে ফোনের Airplane Mode টা অন করে নিবেন এবং যখন আপনি গন্তব্য স্থলে পৌঁছাবেন তখন এয়ার প্লেন মোড টা অফ করে দিবেন। তাহলে প্রবলেম টা থেকে অনেক টাই মুক্তি পাওয়া যাবে।

ফোনের প্রসেসর টা এরকম ভাবেই তৈরি যে গরম হয়ে গেলে কিছুক্ষণ পর তা ঠিক হয়ে যায়। কিন্তু যখন আপনার ফোনের প্রসেসর গরম হয়ে যাবে তখন সেই অবস্থায় আপনি যদি ফোনটা চালাতে থাকেন তাহলে ফোন টা ধিরে ধিরে হ্যাং করা শুরু করে দিবে। যেমন: আপনি যদি কোনো গেম খেলেন তাহলে বেশ কিছুক্ষণ খেলার পর ল্যাগ করা শুরু করে দেয়। তখন যদি এই অবস্থায় যদি গেমটা খেলতে থাকেন তাহলে প্রসেসর তখন ফোনকে বলে দিবে আর খেলতে হবেনা। তাহলে তখন ফোনটা হ্যাং করবে। তো আমি সাজেস্ট করব ফোন যদি গরম হয়ে যায় সেক্ষেত্রে কিছুক্ষণ ফোন বন্ধ করে রেখে দিবেন তাহলে খুব তারাতাড়ি ফোনের হিট এর প্রবলেম টা ঠিক হয়ে যাবে।





তো এই ছিলো আজকের বিষয়

তো কেমন লাগলো আপনাদের টিউন টা। যদি টিউটোরিয়াল টা ভালো লেগে থাকে প্লিজ Must Be একটা শেয়ার করবেন। আর আমাদের একটা Officia YouTube চ্যানেল আছে প্লিজ আপনারা আমাদের চ্যানেল টা অবশ্যই Subscribe করে আসবেন। আমাদের ইউটিউব চ্যানেল লিংক

আমরা আমাদের এই Blog এ এবং আমাদের YouTube চ্যানেল এ এই ধরনের টিউটোরিয়াল প্রায়ই দিয়ে থাকি। তো All-time ভালো কিছু পেতে আমাদের সাথেই থাকবেন। ধন্যবাদ।

Post a Comment

0 Comments